রিংকেল দূর করার উপায় » wrinkle dur korar upay bangla

রিংকেল কি ? রিংকেল বলতে আমরা বুঝি বলিরেখা, চামরা কুঁচকে জাওয়া, ভাঁজ পরা বা চামড়ায় বয়সের ছাপ পরা।  অকেন সময় এরকমও দেখা যায় অল্প যে বয়সেও অনেকের ত্বকে বলিরেখা বা রিংকেলের দাগ পরেছে যা আমাদের শারীরিক সৌন্দর্য নষ্ট করে তোলে।  আর তাই আমরা আমাদের শারীরিক সৌন্দর্য ফিরে পেতে অনেক উপায় বা পন্থা অবলম্বন করে থাকি।
রিংকেল দূর করার উপায় » wrinkle dur korar upay bangla
আজ আমরা একটি কার্যকারী রিংকেল (wrinkle free face pack) ফ্রী ফেস প্যাক তৈরি করা জানবো।  এবং এটির সঠিক ব্যবহারের সম্পর্কে অবগত হবো।  আসুন জেনে নেই এই ত্বক থেকে রিংকেল দূর করতে এবং রিংকেল ফ্রী প্যাকটি তৈরি করতে কি কি উপকরন লাগবে ও কি ভাবে এটি ত্বকের রিঙ্কেলকে দুরিকরনের জন্য ব্যাবহার করতে হবে।
১. তিন চামচ চাল
২. এক চামচ দুধ
৩. এক চামচ মধু
৪. দুটি ভিটামিন ই ক্যাপসুল
তৈরী করার পদ্ধতি ও ব্যাবহার: সবার প্রথমে তিন চামচ চাল গুলিকে দুই গ্লাস জলে ভিজিয়ে সিদ্ধ করে নিতে হবে।  চাল গুলি সিদ্ধ হয়ে গেলে ছেঁকে নিয়ে জল আলাদা করে নিন।  এরপর এই চালের সাথে মধু, দুধ, আর ভিটামিন ই ক্যাপসুল এক সাথে মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে নিন।  এই পেস্টটি স্কিনে লাগিয়ে রাখুন।  শুকনো অবস্থায় আসা পর্যন্ত এটি চামড়ায় লাগিয়ে রাখুন।  শুকিয়ে গেলে হাতের তালুর মধ্যে অল্প জল নিয়ে আলতো করে ভিজিয়ে হাল্কা ম্যাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন।  আরও ভালো ফল পেতে অতিরিক্ত চালের জলের দ্বারা ধুতে পারেন।  সপ্তাহে দুদিন এই পদ্ধতি প্রয়োগ করলে কিছু দিনের মধ্যেই রিংকেল দুর হয়ে যাবে আর চামড়া টানটান অবস্থায় ফিরে আসবে।

এই রিংকেল ফ্রী প্যাকের উপকরণ গুলি কি ভাবে কাজ করে ?

 

১. চাল (Rice): ত্বকের রিংকেল দুর করতে প্রথমে যে উপকরণটি আমরা নিয়েছিলাম সেটি হলো চাল।  চালে প্রোটিন, ভিটামিন, আর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান থাকে।  যা আমাদের ত্বকের যত্নের জন্য টোনারের কাজ করে।  চালের আটা শুকিয়ে যাওয়া চামড়াকে মঈশ্চারাইজার করতে সাহায্য করে।  ফলে সময়ের আগে চামড়া গুটিয়ে যাওয়া এবং ত্বকে বলিরেখা পড়া বা রিংকেল দূর করতে সাহায্য করে।

২. দুধ (Milk): ত্বকের রিংকেল দুর করতে ২য় যে উপকরণটি নিয়েছিলাম সেটি হলো দুধ।  দুধের মধ্যে ল্যাকটিক অ্যাসিড থাকে যা ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে।  দুধে সমৃদ্ধ ভিটামিন A আর বায়টিন ত্বকের ড্রেইনেসকে দূর করে স্কিনকে হেলদি করে।  দুধ চামরার ফাইনলাইনকেও হাল্কা করতে সাহায্য করে।

৩. মধু (Honey):  রিংকেল দূরিকনের জন্য তৃতীয় যে উপকরণটি নিয়েছিলাম সেটি হলো মধু।  এই মধু একটি অতি প্রাচীন মহাঔষধী বলেও পরিচিত।  মধু শরীরের বিভিন্ন ধরনের রোগের উপসমের পাশাপাশি, আমাদের ত্বকের যত্নের জন্যও এটি অন্যতম একটি উপকরণ।  মধুর মধ্যে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট উপাদান থাকে যা ড্রাই স্কিনকে সারিয়ে তুলতে সাহায্য করে।  আর এর মধ্যে ভিটামিন ও মিনারেল পাওয়া যায় যা ত্বককে হেলদি রাখতে সক্ষম হয়।

৪. ভিটামিন ই ক্যাপসুল (vitamin E capsule): রিংকেল ফ্রী ফেস প্যাক তৈরি করতে চতুর্থ যে উপকরণটি নিয়েছিলাম সেটি হলো ভিটামিন ই ক্যাপসুল।  ভিটামিন ই ক্যাপসুলের মধ্যে অ্যান্টি এজেন্ট প্রপাটি পাওয়া যায় যা আমাদের ত্বক কুচকে যাওয়া থেকে রক্ষা করে এবং চামড়া টানটান রাখতে সহায়তা করে।

Comments are closed.

error: