6 Helpful Bengali Things To Know Before Buying A Car In India

Are you thinking of buying a new car? Then you must know these 6 things before buying your new dream car. Otherwise, you may have to regret it later.

Helpful Bengali Things To Know Before Buying A Car In India

Before buying a new car, many questions arise in everyone’s mind. What kind of car will I benefit from? Will I buy a car but will I buy it in cash or will I buy it in monthly installment? Which car insurance company would be better? Thousands of such questions revolve around our minds. As a result, many times we cannot make the right decision. And we regret after buying the car.

Car Buying Tips গাড়ি কেনার আগে জেনে নিন

On this website you will find some Bangla tips for buying a new car. Which will be convenient for buying your expensive car.

নতুন গাড়ি কেনার আগে সবার মনেই নানা প্রশ্ন জাগে, কেমন গাড়ি নিলে সুবিধা হবে? গাড়িতো কিনবো ক্যাসে কিনবো নাকি মান্থলি কিস্তিতে কিনবো? গাড়ির জন্য কোন ইন্সুরেন্স কোম্পানী ভালো হবে? এরকম হাজারো প্রশ্ন আমাদের মনে ঘোরাফেরা করে;

গাড়ি কেনা প্রত্যেকটি মানুষের একটি বড়ো স্বপ্ন, ভারতে প্রতিটি সফল ব্যাক্তিকে দুটি জিনিসের উপর ভিত্তি করে মাপা হয়, এক একটি সুন্দর বাড়ি আর দ্বিতীয় হলো একটি মনের মতো গাড়ি, তবে বাড়ির বিষয়ে আমরা অন্য কোনো একদিন বিস্তারিত আলোচনা করবো, আজ আমরা গাড়ি ক্রয় বিষয়ক কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা যা একটি নতুন গাড়ি কিনতে অনেক বেশি সহায়তা করবে, চলুন তাহলে জেনে নিন নেওয়া যাক, গাড়ি কেনার সময় বা পূর্বে কোনো কোন বিষয় গুলোর উপর আমদের লক্ষ্য রাখতে হবে;

1. Choosing the care and planning the finances

গাড়ি কেনার পূর্বে আমাদের যে সব বিষয়ে গুলো প্রথমে লক্ষ্য রাখতে হবে তা হলো, আমাদের কি ধরনের গাড়ি প্রয়োজন, কতো বাজেটের মধ্যে গাড়ি প্রয়োজন, AC car নাকি Non AC car, মাসিক ইনকাম অনুযায়ী কোন গাড়ি আমরা মেনটেন করতে পারবো, ফ্যামিলি লোকজন অনুসারে কি ধরনের গাড়ি সুটেবেল হবে, ইত্যাদি বিষয়ে নজর রাখা দরকার কোনো গাড়ি কেনার আগে।

নাহলে আমরা অপরকে দেখানোর জন্য অনেক সময় অপরকে দেখানোর জন্য কোনো দামী গাড়ি কিনে বসি, কিন্তু যখন গাড়ি মেন্টেনেন্স এর কথা আসে তখন অনেকটা চাপ বেড়ে যায়। তাই তারা হুর করে গাড়ি ক্রয় করার ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত না নিয়ে আপনার জন্য কোন বাজেটের ও কি গাড়ি দরকার সেটা ঠিক করে নিতে হবে প্রথমে, যাতে ভবিষ্যতে আফসোস না করতে হয়।

2. Resale Value

গাড়ি কেনার সময় গাড়ির ফিচারস্ এবং বিভিন্ন গাড়ির বিজ্ঞাপন দেখে আবেগের বশবর্তী হয়ে গাড়ি কিনেতো ফেলি, কিন্তু যখন প্রশ্ন আসে ওই গাড়ি বিক্রি করার, অর্থাৎ আপনার ব্যবহৃত গাড়িটি অপর কোনো ব্যাক্তিকে বিক্রি করার তখন মনের মতো বিক্রয় দাম (Resale Value) পাওয়া যায় না।

যদি আমরা দুই চাকা মোটর বাইকের কথা বলি তাহলে দেখা রয়াল ইনফিল্ড বাইকের রিসেল ভ্যালু যে হিসাবে পাওয়া যায় অন্য কোনো 150cc বা 200cc গাড়ির সেই হিসাবে দাম পাওয়া যায় না।

সিমিলারলি যদি আমরা মারুতি সুজুকি গাড়ির বিষয়ে দেখি এই কোম্পানির গাড়ি সাধারণত মিডিল ক্লাস ফ্যামিলির কথা মাথায় রেখে তৈরি করা হয়ে থাকে, এই গাড়ির স্পেয়ার পার্টস খুব সহজেই বাজারে পাওয়া যায়, সুতরাং এই গাড়ির resale value ও ভালো পাওয়া যায়।

কিন্তু অপর দিকে যদি আমরা অন্য কোনো দামী কোম্পানির গাড়ির বিষয়ে দেখি, দেখা যাবে সেই গাড়িটি কম্ফেটেবলতো হয় কিন্তু ওই গাড়ির স্পেয়ার পার্টস দামী ও সহজ লভ্য হয়না, এর ফলে এই গাড়ি যে দামে কেনা হয় বিক্রি করার সময় মনের মতো বিক্রয় দাম পাওয়া যায় না।

তাই আপনি যদি ভেবে থাকেন কিছু দিন ব্যবহারের পর আপনি গাড়িটি ভালো দামে বেচে দিবেন, এবং আবার একটি নতুন গাড়ি নেবেন তাহলে অবশ্যই কোনো একটি নতুন গাড়ি কেনার আগে এই বিষয় গুলো মাথায় রাখা অন্যন্ত জরুরী।

3. Credit Score

পরবর্তী বিষয় যেটি সেটি হলো আপনার Credit Score; যদি আপনার ক্রেডিট স্কোর ভালো হয় তবে যেকোনো গাড়ির শোরুম থেকে আপনি red carpet welcome পাবেন, ফলে কোনো ব্যাংক ও ফাইন্যান্সিয়াল ইনস্টিটিউশন গাড়ির লোনের জন্য দ্বিধা বোধ করবে না। সহজেই আপনি car loan পেতে পারবেন। গাড়ি কেনার ক্ষেত্রে কোনো রকম অসুবিধায় পড়তে হবে না।

4. Fuel Capacity and Mileage

অনেকেই ব্যাক্তিই গাড়ি কেনেন গাড়ির এডভার্টাইসিং দেখে, প্রতিটা গাড়ির বিজ্ঞাপনে দেখানো হয় আমাদের গাড়িটি বেস্ট ইন ক্লাস মাইলেজ দিয়ে থাকে; আমাদের এই গাড়িটির মাইলেজ বাকি প্রতিটা গাড়ির মাইলেজ থেকে অনেক বেশি ফুয়েল সার্ভিস দিয়ে থাকে, আমরা সেটা সহজেই বিশ্বাস করে নিই, কারন ভবি যেহেতু এতো বড়ো টেলিভিশন চ্যানেলে বিজ্ঞাপন দেখানো হচ্ছে নিশ্চয় এটি ভুল হবে না।

কিন্তু আপনি যখন শোরুম এ গিয়ে গাড়ির ডিলারের সঙ্গে কথা বলবেন তখন বুঝতে পারবেন আসল সত্যতা। হয়তো আপনি বিজ্ঞাপনে দেখেছেন 25 কিলোমিটার পার লিটার। কিন্তু একথা যখন আপনি সাক্ষাতের সময় জানতে চাইবেন গাড়ির ডিলার তখন বলবেন না স্যার আসলে এটি লোকাল রাস্তায় 20 KM/L এবং হাই ওয়েতে 23 KM/L সার্ভিস দিয়ে থাকে; আর তখন আপনি ভেবে উঠতে পারেন না এই মুহূর্তে আপনি কি করবেন, গাড়িটা কেনা আপনার পক্ষে যুক্তিযুক্ত হবে কিনা।

তাই কোনো গাড়ি কেনার পূর্বে আপনি ওই গাড়ির বিষয়ে রিচার্স করুন, এর জন্য ইন্টারনেট এমন অনেক ওয়েবসাইট আছে যেখানে গাড়ির মডেল অনুযায়ী সমস্ত রকম গাড়ির তথ্য দেয়া আছে, যারা গাড়ি কিনেছে তাদের রিভিউ পড়ুন, আপনার বন্ধু, পরিচিত ও আত্মীয়দের যারা গাড়ি কিনেছে তাদের সাথে গাড়িটির সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানুন, তার পর সিদ্ধান্ত নিন।

5. Car Loan

বিশেষত ভারতবর্ষে EMEI এর উপর ভিত্তি করেই বেশির ভাগ ব্যক্তি গাড়ি কিনে থাকেন,  আর অনেক সময় এমন হয় আমরা গাড়িতো কিনে ফেলি মাসিক কিস্তিতে কিন্তু EMEI এর ব্যাপারে কোনো রকম পুনর্বিচার করিনা, আমরা ভবি আজ কাল বেশিরাগ শরুমেই ফাইন্যান্স এর সুবিধা পাওয়া যায়, শোরুম থেকে যেটা বলবে তার মধ্যে যে কোনো একটা emei গাড়ি করে নেবো;

কিন্তু এটা করে হয়তো আপনি পরে কোনো অসুবিধার সম্মুখীন হতে পারেন, তাই গাড়ি কেনার পূর্বে emei এর বিষয়েও ভালো করে রিসার্চ করে নেওয়া দরকার, শোরুমে যেসব Car Loan পাওয়া যায় তার থেকেও কোনো ভালো অপশন অন্য কোনো বাইরের car finance company প্রদান করে থাকে, সে ব্যাপারে আপনি জেনে নিন আগে, এবং গাড়ি কেনার সময় আপনার ডিলারের সাথে সে বিষয়ে কথা বলুন;

আর সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ন বিষয় যেটা সেটা হলো EMEI আপনার monthly income এর 30% এর বেশি না হয়।

6. Car Insurance

সব শেষে যেটা খুব জরুরী বিষয় সেটি হলো Car Insurance, অবশ্যই করে আপনার মূল্যবান গাড়িটির একটি ইন্সুরেন্স করে নেয়া খুবই দরকার, যাতে কোন বিপদের সময়ে আপনার কাজে আসে, রাস্তায় গাড়ি চললে বিপদ আসতেই পারে, আগে থেকে যদি আপনার একটি ভাল রকম car ইন্সুরেন্স করা থাকে তাহলে আপনি এবং আপনার মূল্যবান গাড়িটির জন্য ওই Cār Insurance Cōmpāny ক্ষতিপূরণ দিয়ে আপনাকে সুরক্ষা দিতে পারে। যদি আপনারা কাছে কোনো ইন্সুরেন্স না থেকে তাহলে আপনার কারণে যে সকল লোকসান হয়েছে তার সব টুকুই আপনাকে বহন করতে হবে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

error: